তথ্যপ্রযুক্তিতে এগিয়ে যাচ্ছে বাংলাদেশ

Rate this post

 

ভূমিকা:

 

তথ্যপ্রযুক্তিতে এগিয়ে যাচ্ছে বাংলাদেশ তরুণ লেমুনুজ্জামান কুষ্টিয়ার আল্লার দরগার প্রত্যন্ত এলাকায় তথ্যপ্রযুক্তি প্রশিক্ষণের জন্য একটি প্রতিষ্ঠান দিচ্ছেন।

তিনি জানালেন, নিজের এলাকায় তথ্যপ্রযুক্তির প্রশিক্ষণ হিসেবে বেসিক কম্পিউটার, গ্রাফিকস ডিজাইন,  তাঁর মতো অনেক তরুণই দেশের তথ্যপ্রযুক্তি খাতের উন্নয়নে রাখছেন বিশেষ ভূমিকা।

 

প্রযুক্তি কর্মসংস্থান তৈরি করে। আগামী দিনে যে রকম কাজ হবে, এর ১০ শতাংশ কম্পিউটার প্রোগ্রামিং, ২০ শতাংশ করবে প্রযুক্তি।

বাকি ৭০ শতাংশের জন্য মানুষকেই লাগবে।

 

ওই তালিকায় বাংলাদেশসহ এশিয়া-প্রশান্ত মহাসাগরীয় অঞ্চলের দেশগুলোর পারফরম্যান্স তুলে ধরা হয়েছে। ওই সূচকে দেখানো হয়েছে,

৯০ শতাংশ উন্নয়নশীল অর্থনীতি এখন ক্রিটিক্যাল স্কিল বা জটিল দক্ষতা অর্জনের ক্ষেত্রে পেছনে পড়ে যাচ্ছে বা ঝুঁকিতে পড়ছে।

এ ক্ষেত্রে প্রযুক্তিগত দক্ষতার ক্ষেত্রে ভালো করছে বাংলাদেশ।

 

তথ্যপ্রযুক্তিতে এগিয়ে যাচ্ছে বাংলাদেশ:

 

তথ্যপ্রযুক্তিতে এগিয়ে যাচ্ছে বাংলাদেশ ই-গভর্ন্যান্সের জাতীয় ইনডেক্সে আমরা এখন ১১৫ নম্বরে আছি। আগামী পাঁচ বছরে আমরা আরও ৫০ ধাপ উন্নতি করে দুই অঙ্কের সংখ্যায় আসব,

এমন লক্ষ্যমাত্রা আমাদের। ১০ বছর আগে আমরা ডিজিটাল বাংলাদেশের উদ্দেশ্যে যাত্রা শুরু করেছিলাম। তখন অনেকেই বুঝতে পারেনি যে ডিজিটাল বাংলাদেশ কী?

 

তবে অল্প সময়ের মধ্যেই আমরা তাদের ভুল প্রমাণ করেছি। ডিজিটাল বাংলাদেশ এখন আর স্বপ্ন নয়, বাস্তব। আজ যা দেখছেন,

 

তা ডিজিটাল বাংলাদেশের সামান্য কিছু। আরও অনেক কিছু আমরা করেছি এবং সামনে করব।’

 এখানে আমাদের সবার একটাই ইচ্ছা, তা হলো অর্থনৈতিক-সামাজিক উন্নয়নে প্রযুক্তি ব্যবহার করা।

 

দেশের তথ্যপ্রযুক্তি খাতের এত বড় অর্জন সেখানে প্রদর্শন করা হবে। স্বাধীনতার ৫০তম বার্ষিকীর বছরে এ আয়োজন দেশের জন্য গৌরব বয়ে আনবে।

 

এতে ৮৩ দেশের প্রতিনিধিরা অংশ নেবেন।’

তথ্যপ্রযুক্তিতে বাংলাদেশের উন্নতির প্রশংসা ইতিমধ্যে সারা বিশ্ব থেকেই আসছে।

 

তথ্যপ্রযুক্তি খাতের আন্তর্জাতিক সংগঠন ওয়ার্ল্ড ইনফরমেশন টেকনোলজি অ্যান্ড সার্ভিসেস অ্যালায়েন্সের (উইটসা) মহাসচিব জেমস পয়জ্যান্টস বলেন,

 

তথ্যপ্রযুক্তিতে বাংলাদেশ ভালো করছে এবং যথেষ্ট গুরুত্ব দিচ্ছে বলেই উইটসা ঢাকাকে বেছে নিয়েছে বিশ্ব সম্মেলন করার জন্য।

 

এগিয়ে চলার হার স্পষ্ট:

 

আরো পড়ুন

তথ্যপ্রযুক্তিতে এগিয়ে যাচ্ছে বাংলাদেশ তথ্যপ্রযুক্তির উন্নয়নে বাংলাদেশের এগিয়ে চলার বিষয়টি স্পষ্ট হচ্ছে।

সরকারের তথ্যপ্রযুক্তি বিভাগের তথ্য অনুযায়ী,

 

বিভিন্ন কার্যকর উদ্যোগের ফলে কয়েক বছর ধরে তথ্যপ্রযুক্তিতে আন্তর্জাতিক স্বীকৃতি পেতে শুরু করেছে বাংলাদেশ। এর মধ্যে আইটিইউ অ্যাওয়ার্ড,

 

সাউথ সাউথ অ্যাওয়ার্ড, গার্টনার এবং এ টি কারনিসহ বেশ কিছু সম্মানজনক স্বীকৃতি পেয়েছে বাংলাদেশ। তবে ইন্ডাস্ট্রি ডেভেলপমেন্টে আরও জোর দেওয়া প্রয়োজন।

তথ্যপ্রযুক্তিতে এগিয়ে যাচ্ছে বাংলাদেশ
তথ্যপ্রযুক্তিতে এগিয়ে যাচ্ছে বাংলাদেশ

 

অগ্রগতির চিত্র:

 

তথ্যপ্রযুক্তিতে এগিয়ে যাচ্ছে বাংলাদেশ ইতিমধ্যে মহাকাশে বাংলাদেশের প্রথম স্যাটেলাইটসহ কয়েকটি বড় প্রাপ্তি বিশ্ববাসীর কাছে বাংলাদেশকে নিয়ে গেছে অন্য রকম উচ্চতায়। বাংলাদেশ প্রযুক্তি বিশ্বে অর্জন করে নিয়েছে নিজেদের একটি সম্মানজনক স্থান।

 

সবচেয়ে বড় বিস্ময়ের নাম হচ্ছে ‘ডিজিটাল বাংলাদেশ’ হিসেবে অগ্রযাত্রা শুরু।

 

তথ্য ও যোগাযোগপ্রযুক্তি বিভাগ ডিজিটাল বাংলাদেশ বাস্তবায়নে কয়েকটি অনুষঙ্গের ওপর গুরুত্বারোপ করে কাজ করে চলেছে।

 

জীবনমানে পরিবর্তন:

 

আরো পড়ুন

 

তথ্যপ্রযুক্তিতে এগিয়ে যাচ্ছে বাংলাদেশ বড় পরিবর্তন এনেছে উবার-পাঠাওয়ের মতো রাইড শেয়ারিং সেবা চালু হওয়ায়।

 

এ ক্ষেত্রে কর্মসংস্থান যেমন বেড়েছে, তেমনি অনেকের যাতায়াতে সুবিধাও হয়েছে।

স্মার্টফোন ব্যবহারকারী বাড়ায় নতুন উদ্যোক্তাও সৃষ্টি হয়েছে।

তথ্যপ্রযুক্তিতে এগিয়ে যাচ্ছে বাংলাদেশ

 

প্রথম কৃত্রিম স্যাটেলাইট বঙ্গবন্ধু-১:

 

তথ্যপ্রযুক্তিতে এগিয়ে যাচ্ছে বাংলাদেশ দেশের প্রথম কৃত্রিম উপগ্রহ (স্যাটেলাইট) বঙ্গবন্ধু-১।

 

আর এর মধ্য দিয়েই অর্জনের তালিকায় এবং তথ্যপ্রযুক্তি খাতে বাংলাদেশের অগ্রগতিতে আরেকটি গুরুত্বপূর্ণ প্রাপ্তি।

 

স্যাটেলাইট মহাকাশে যাওয়ার পর পরীক্ষামূলকভাবে দেশে সম্প্রচার কার্যক্রম চালানো হয়।

 

মেড ইন বাংলাদেশ:

 

তথ্যপ্রযুক্তিতে এগিয়ে যাচ্ছে বাংলাদেশ দেশি-বিদেশি প্রকৌশলীসহ কারখানায় সব মিলিয়ে এখন প্রায় ১ হাজার কর্মী।

প্রাথমিকভাবে প্রতি মাসে ৬০ হাজার ল্যাপটপ, ৩০ হাজার ডেস্কটপ এবং ৩০ হাজার মনিটর উৎপাদনের লক্ষ্য তাদের। শুরুতে বিনিয়োগ প্রায় ১ হাজার কোটি টাকা।

 

৩ লাখ বর্গফুটের বিশাল এই কারখানায় আয়োজন করা হয়েছে কম্পিউটার সংযোজন-উৎপাদনের এক মহাযজ্ঞ। ল্যাপটপ ও ডেস্কটপের ডিজাইন ডেভেলপ,

 

গবেষণা ও উন্নয়ন বিভাগ, মাননিয়ন্ত্রণ বিভাগ ও টেস্টিং ল্যাব নিয়ে স্বয়ংসম্পূর্ণ এই কারখানা।
কারখানার জন্য যে যন্ত্রপাতি আনা হয়েছে,

 

তা জার্মান ও জাপান প্রযুক্তির। এ ছাড়া বিভিন্ন কোম্পানি দেশে মোবাইল সংযোজন কারখানা শুরু করেছে।

শুরু হয়ে গেছে মেড ইন বাংলাদেশ কার্যক্রম।
সম্প্রতি এ নিয়ে ডিজিটাল ডিভাইস অ্যান্ড ইনোভেশন এক্সপোর আয়োজন করা হয়।

 

সেখানে দেশে তৈরি রোবট ও স্টার্টআপগুলো তাদের উদ্ভাবন প্রদর্শন করে।

 

ফোর-জি ও ফাইভ-জি পরীক্ষা:

 

আরো পড়ুন

 

তথ্যপ্রযুক্তিতে এগিয়ে যাচ্ছে বাংলাদেশ নানা ধরনের জল্পনা-কল্পনা শেষে আনুষ্ঠানিকভাবে চার মোবাইল ফোন অপারেটরকে চতুর্থ প্রজন্মের (ফোরজি)

টেলিযোগাযোগ সেবার লাইসেন্স হস্তান্তর করে বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশন (বিটিআরসি)।

 

লাইসেন্স পাওয়ার অল্প সময়ের মধ্যেই নির্দিষ্ট কয়েকটি স্থানে ফোর-জি নেটওয়ার্ক চালুর মাধ্যমে নিজেদের আনুষ্ঠানিক কার্যক্রম শুরু করে অপারেটরগুলো।

 

আর খুব অল্প সময়ের মধ্যে সারা দেশে তা ছড়িয়ে দেওয়ার প্রতিশ্রুতিও দেয় ।

 

অবকাঠামো উন্নয়ন:

 

তথ্যপ্রযুক্তিতে এগিয়ে যাচ্ছে বাংলাদেশ ফলে সরকারের ৫৮টি মন্ত্রণালয়, ২২৭টি অধিদপ্তর, ৬৪টি জেলার জেলা প্রশাসকের কার্যালয় এবং জেলা ও উপজেলার ১৮ হাজার ৫০০টি সরকারি অফিস নেটওয়ার্কের আওতায় এসেছে।

 

৮০০টি সরকারি অফিসে ভিডিও কনফারেন্সিং সিস্টেম, ২৫৪টি অ্যাগ্রিকালচার ইনফরমেশন অ্যান্ড কমিউনিকেশন সেন্টার (এআইসিসি) ও ২৫টি টেলিমেডিসিন সেন্টার স্থাপন করা হয়েছে।

 

সরকারি কর্মকর্তারা যাতে অফিসের বাইরে থেকেও দাপ্তরিক কার্যক্রম সুচারুভাবে সম্পাদন করতে পারেন, সে জন্য তাঁদের মাঝে ২৫ হাজার ট্যাব বিতরণ করা হয়েছে।

 

নিজস্ব ডেটাসেন্টার:

 

তথ্যপ্রযুক্তিতে এগিয়ে যাচ্ছে বাংলাদেশ তথ্যপ্রযুক্তিতে উচ্চতর প্রশিক্ষণ দিয়ে দক্ষ জনবল তৈরির জন্য বিসিসির এলআইসিটি প্রকল্পের আওতায় একটি বিশেষায়িত ল্যাব এবং একটি স্পেশাল সাউন্ড ইফেক্ট ল্যাব স্থাপন করা হয়েছে।

 

এ ছাড়াও ২০টি পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ে বিশেষায়িত ল্যাব প্রতিষ্ঠার জন্য ইকুইপমেন্ট সরবরাহ করা হয়েছে।

 

হাইটেক পার্ক:

 

সরকারের ধারাবাহিকতা না থাকা এবং মামলা জটিলতার কারণে কালিয়াকৈর হাইটেক পার্ক নির্মাণ এবং কারওয়ান বাজারে অবস্থিত জনতা টাওয়ারে সফটওয়্যার টেকনোলজি পার্ক প্রতিষ্ঠা কার্যক্রম প্রায় স্থবির হয়ে পড়েছিল।

 

গাজীপুরের কালিয়াকৈর হাইটেক পার্ক এবং জনতা সফটওয়্যার টেকনোলজি পার্ক নির্মাণের ক্ষেত্রে সব প্রতিবন্ধকতা দূর হয়েছে।

 

কালিয়াকৈর হাইটেক পার্ক ও খুলনায় শেখ হাসিনা হাইটেক পার্কে কার্যক্রম শুরু হয়েছে। সিলেট ইলেকট্রনিক সিটি,

 

রাজশাহীতে বরেন্দ্র সিলিকন সিটি, নাটোরে আইটি ট্রেনিং অ্যান্ড ইনকিউবেশন সেন্টার, চুয়েটে আইটি বিজনেস ইনকিউবেটর স্থাপন কার্যক্রম বাস্তবায়নের জন্য কাজ চলছে।

 

মানবসম্পদ উন্নয়ন:

 

বিকেআইসিটি থেকে ৩ হাজার ২৭৬, বাংলাদেশ হাইটেক পার্ক কর্তৃপক্ষের অধীন সাপোর্ট টু ডেভেলপমেন্ট অব কালিয়াকৈর হাইটেক পার্ক প্রকল্পের আওতায় দেশে-বিদেশে ৪ হাজার ৯৮১ এবং ‘বাড়ি বসে বড় লোক’

 

কর্মসূচির অধীনে ১৪ হাজার ৭৫০ জনকে বেসিক আইসিটি, স্কিল এনহ্যান্সমেন্ট ও ফ্রিল্যান্সিংসহ নানা ধরনের প্রশিক্ষণ দেওয়া হয়েছে।

 

তথ্য ডিজিটাইজেশন:



এরই অংশ হিসেবে ৬০০ মোবাইল অ্যাপ্লিকেশন তৈরি করা হয়েছে।

 

অ্যাপসগুলো গুগল প্লে স্টোরে রয়েছে। প্রতিদিন বিপুলসংখ্যক মানুষ নিজেদের প্রয়োজনে এসব মোবাইল অ্যাপ্লিকেশন ব্যবহার করছে।

 

এ ছাড়া ২০০ বছরেরও অধিককাল ধরে প্রচলিত বিচারিক কার্যক্রমের ডিজিটালাইজেশনের উদ্যোগ নিয়েছে সরকার।

 

এ জন্য তথ্য ও যোগাযোগপ্রযুক্তি বিভাগ ও বিচার বিভাগ যৌথভাবে ‘বাংলাদেশের বিচারিক ব্যবস্থাকে ডিজিটালাইজেশনে সহায়তা প্রদান’ শীর্ষক প্রকল্প গ্রহণ করেছে।

 

স্টার্টআপ কালচার:

 

কোম্পানিটি প্রতিষ্ঠার পর স্টার্টআপ মূল্যায়নের পরিপ্রেক্ষিতে সিড স্টেজে সর্বোচ্চ এক কোটি এবং গ্রোথ গাইডেড স্টার্টআপ রাউন্ডে সর্বোচ্চ পাঁচ কোটি টাকা বিনিয়োগ করা যাবে।

 

তথ্য ও যোগাযোগপ্রযুক্তি বিভাগের অধীন বাংলাদেশ কম্পিউটার কাউন্সিল কর্তৃক বাস্তবায়নাধীন আইডিয়া প্রকল্প বাংলাদেশে স্টার্টআপ সংস্কৃতি গড়ে তোলার লক্ষ্যে প্রধানমন্ত্রীর তথ্য ও

যোগাযোগ প্রযুক্তিবিষয়ক অনুদান দেওয়া হয়েছে।

 

ই-গভর্ন্যান্স:

 

আইসিটি সম্প্রসারণ ও ব্যবহার জনসাধারণের নাগালের মধ্যে আনার জন্য বিভিন্ন পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে।

 

এ ছাড়া উন্নত দেশগুলো ইতিমধ্যে আইসিটির সফল ব্যবহার ও প্রয়োগের মাধ্যমে তাদের সব ক্ষেত্রে কাঙ্ক্ষিত উন্নতি অর্জন করতে সক্ষম হয়েছে।

 

সরকার কেন্দ্রীয় ও স্থানীয় প্রশাসনের মধ্যে তথ্য আদান-প্রদানের সংযোগ স্থাপনের মাধ্যমে সরকারি কাজে স্বচ্ছতা ও জবাবদিহি নিশ্চিতকরণ,

 

অধিকতর উন্নত জনসেবা প্রদানের জন্য প্রশাসনের সর্বস্তরে ই-গভর্ন্যান্স প্রতিষ্ঠা করেছে।

 

উপসংহার:

 

উপরুক্ত আলোচনা থেকে আমরা জানতে পারলাম যে,প্রযুক্তি কর্মসংস্থান তৈরি করে। আগামী দিনে যে রকম কাজ হবে,

 

এর ১০ শতাংশ কম্পিউটার প্রোগ্রামিং, ২০ শতাংশ করবে প্রযুক্তি।

বাকি ৭০ শতাংশের জন্য মানুষকেই লাগবে।  ওই তালিকায় বাংলাদেশসহ এশিয়া-প্রশান্ত মহাসাগরীয় অঞ্চলের দেশগুলোর পারফরম্যান্স তুলে ধরা হয়েছে।

 

ওই সূচকে দেখানো হয়েছে, ৯০ শতাংশ উন্নয়নশীল অর্থনীতি এখন ক্রিটিক্যাল স্কিল বা জটিল দক্ষতা অর্জনের ক্ষেত্রে পেছনে পড়ে যাচ্ছে বা ঝুঁকিতে পড়ছে।

 

এ ক্ষেত্রে প্রযুক্তিগত দক্ষতার ক্ষেত্রে ভালো করছে বাংলাদেশ।

8 thoughts on “তথ্যপ্রযুক্তিতে এগিয়ে যাচ্ছে বাংলাদেশ”

  1. Christi Dadson

    Hi there,
    Are you tired of struggling to create stunning websites that attract leads and keep your online presence secure? Say goodbye to the hassle and hello to PixelArmorAI!
    https://bit.ly/3T2UJt8
    https://bit.ly/3T2UJt8
    ✨ Choose from thousands of professionally designed templates tailored to your industry:
    https://bit.ly/3T2UJt8
    Fuel your website with high-quality AI-generated content, images, and videos:
    https://bit.ly/3T2UJt8
    Design & Security.
    Drive Leads effortlessly with AI content creation:
    Start your own website agency and earn over $20,000 per month:
    Design & Security.
    https://bit.ly/3T2UJt8

  2. Alexandra Bath

    Dear ,

    Sign up today through https://cutt.ly/9wXHM7s1 and kickstart your journey with Bybit Starter Rewards. Earn up to 5,000 USDT and take your trading to new heights!

    the Bybit Starter Rewards program – a fantastic opportunity for you to supercharge your trading experience.

    Here’s how it works:

    1. Register: Sign up for a Bybit account through https://cutt.ly/9wXHM7s1 to ensure you’re eligible for the rewards.

    2. Deposit: Make your first deposit and enjoy seamless transactions with our user-friendly platform.

    3. Trade: Dive into the exciting world of crypto trading on Bybit. The more you trade, the more you earn!

    Happy trading!

    Best regards

  3. Amelia Brown

    Hi there,

    We run a YouTube growth service, which increases your number of subscribers both safely and practically.

    – We guarantee to gain you 700+ subscribers per month.
    – People subscribe because they are interested in your channel/videos, increasing likes, comments and interaction.
    – All actions are made manually by our team. We do not use any ‘bots’.

    The price is just $60 (USD) per month, and we can start immediately.

    If you have any questions, let me know, and we can discuss further.

    Kind Regards,
    Amelia

  4. Margery Joseph

    Subject: Unlock Your Website’s Potential with Our Keyword Analysis Tool!

    Hey there,

    Looking to boost your website’s visibility and attract more traffic? Say goodbye to the guesswork and hello to precise keyword analysis with our powerful tool!

    Ready to take your website to the next level? Simply reply “Yes” to this email, and we’ll send you the link to access our keyword analysis tool for free.

    Finding the right keywords doesn’t have to be rocket science. With our tool, you can effortlessly discover keywords that have low SEO difficulty and high search volume. It’s the perfect formula for ranking higher in search engine results and reaching your target audience effectively.

    We provide you with exact search volumes and the most accurate keyword difficulty metrics, so you can make informed decisions about your SEO strategy.

    Ready to take your website to the next level? Simply reply “Yes” to this email, and we’ll send you the link to access our keyword analysis tool for free.

    Don’t miss out on this opportunity to supercharge your SEO efforts. Say “Yes” now and start dominating the search engine rankings!

    Best regards,

  5. Kory Billingsley

    Dear,

    Welcome to Streetball Strive – your gateway to the thrilling world where urban basketball meets endless challenges! We’re excited to have you join our community and embark on this exhilarating journey of streetball glory.

    https://cutt.ly/Qw1sqcFg

    Here’s what Streetball Strive has to offer:

    Urban Playground: Immerse yourself in visually stunning and dynamic streetball courts set against iconic urban landscapes. From the neon-lit streets of Tokyo to the rugged alleys of Brooklyn, experience the rhythm of urban basketball like never before.

    Showcase Your Skills: Master the art of streetball with intuitive controls and realistic gameplay. Dazzle the crowds with crossovers, dunks, and precision shots. The spotlight is on you – make every moment count!

    Participate in Tournaments: Climb the ranks and compete in intense streetball tournaments. Challenge other players, build your reputation, and strive to reach the top of the leaderboards. The street is watching – will you be the next legend?

    Build Your Team: Form alliances with players from around the world. Create the streetball team of your dreams, devise strategies, and dominate the courts together. Teamwork makes the dream work!

    Customize Your Player: Express your unique style with a wide range of customization options. From flashy sneakers to streetwear items, personalize your player to stand out on the court and make a statement.

    Global Streetball Community: Connect with streetball enthusiasts from around the globe. Share your highlights, watch epic matches, and stay updated on the latest streetball trends. The streetball community is buzzing – join the conversation!

    Get ready to hit the asphalt and leave your mark in the world of Streetball Strive. Are you ready to strive for greatness? Lace up your sneakers, hit the courts, and let the journey of urban basketball begin!

    Don’t miss out on the action – download Streetball Strive now and start your streetball adventure today!

    https://cutt.ly/Qw1sqcFg

    Best regards

  6. Justina Marston

    Hey there,

    Ready to take your social media presence to the next level? We’ve got just the thing to skyrocket your engagement and make your content go viral on platforms like TikTok and YouTube.

    https://www.opus.pro/?via=f525be

    Introducing our game-changing AI-powered tool designed specifically for creating attention-grabbing shorts. Here’s why you need to get on board:

    Instant Inspiration: Our AI analyzes trending topics and viral content, giving you fresh ideas and formats to keep your audience hooked.

    Speedy Production: Say goodbye to endless hours spent editing. Our platform streamlines the video creation process, so you can churn out top-notch shorts in no time.

    Built for Virality: Our AI algorithms identify what makes content go viral and incorporate those elements into your videos, ensuring maximum reach and engagement.

    https://www.opus.pro/?via=f525be

    Don’t miss out on the opportunity to stand out in the crowded world of social media. Try our AI-powered tool today and watch your content go viral!

    Best

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *