নতুনদের জন্য ফ্রিল্যান্সিং 2024

Rate this post

নতুনদের জন্য ফ্রিল্যান্সিং

ভূমিকা:

 

নতুনদের জন্য ফ্রিল্যান্সিং অনলাইনে  ফ্রিল্যান্সিং অনেক বেশি বেড়ে চলেছে। বিভিন্ন যোগ্যতা সম্পন্ন ফ্রিল্যান্সাররা বিদেশি

বিভিন্ন ওয়েবসাইটে কাজ করে।  বিদেশী অনেক ওয়েবসাইট বাংলাদেশ সাপোর্ট করে না। 

ফ্রিল্যান্সাররা তাদের উপার্জন করা অর্থ  পেতে অনেক কষ্ট হয়।

 বাংলাদেশ থেকে কোন কোন ফ্রিল্যান্সিং ওয়েবসাইটে কাজ করা সহজ lনতুনদের জন্য

ফ্রিল্যান্সিং । চলুন কথা না বাড়িয়ে শুরু করিl

 

নতুনদের জন্য ফ্রিল্যান্সিং:

নতুনদের জন্য ফ্রিল্যান্সিং
নতুনদের জন্য ফ্রিল্যান্সিং

এ সম্পর্কে আপনাদের মাঝে আলোচনা করা হলো:

 

 ফাইবার একটি জনপ্রিয় ওয়েবসাইট:

 

নতুনদের জন্য ফ্রিল্যান্সিং হ্যালো  ফ্রিল্যান্সিং জগতে সবচেয়ে জনপ্রিয় ওয়েবসাইট এর মধ্যে  ফাইবার। ফাইবারের মধ্যে লক্ষ লক্ষ

ফ্রিল্যান্সার কাজ করে। বাংলাদেশ থেকেও অনেক ফ্রিল্যান্সার ফাইবার থেকে লক্ষ লক্ষ টাকা

ইনকাম করে নিতেছেl

 

 পোর্টফোলিও তৈরি করতে হয় এবং নিজে একটি গিগ তৈরি করতে হয়। আপনার গিগটি যদি

ক্লাইন্টরা পছন্দ করে , তারা আপনাকে কাজ দিবে এবং সেই কাজের বিনিময়ে তারা আপনাকে

পেমেন্ট করবে। সেই পেমেন্ট ফাইবারের ড্যাশবোর্ডে জমা হবে l সেখান থেকে আপনি সরাসরি

পেয়েওনিয়ার  মাধ্যমে বাংলাদেশের যেকোনো ব্যাংকে অথবা বিকাশের মাধ্যমে উত্তোলন করতে

পারবেন। এই ওয়েবসাইট আপনার কাছে যদি ভালো লাগে তাহলে আপনারা অবশ্যই আপনার

মতামত জানিয়ে দিতে পারেনl

নতুনদের জন্য ফ্রিল্যান্সিং

 

আরো দেখুন

 

 আপওয়ার্ক:

 

আপওয়ার্ক হচ্ছে ফ্রিল্যান্সিং জগতের জনপ্রিয়  একটি ওয়েবসাইট। এই ওয়েবসাইটে  এডভান্স

লেভেলের ফ্রিল্যান্সাররা কাজ করে। আপনি যদি ভালো কাজ জানেন ,তাহলে এই

ওয়েবসাইটে কাজ করতে পারেন।

 

  ফাইবারে যেমন গিগ তৈরি করতে হয়, তেমনি আপনারকে বিট করতে হয়। এখানকার টাকাও

আপনি বাংলাদেশের যে কোন ব্যাংকে নিয়ে আসতে পারবেন। এটা আপনাদের সুবিধা হয়ে

থাকেl তাই আপনারা এই কাজগুলো করে অর্থ উপার্জন করতে সহজেই পেয়ে থাকেনl

 

আরো দেখুন

 

People Per Hour:

 

 ফ্রিল্যান্সিং জগতে একটি জনপ্রিয় ওয়েবসাইট হচ্ছে পিপলপার আওয়ার। আপনি যদি বিগেনার

লেভেলের ফ্রিল্যান্সার হন,  এই ওয়েবসাইটটি আপনার জন্য।  এখানে অনেক এডভান্স

লেভেলের ফ্রিল্যান্সাররাও কাজ করে। তাই আপনাকে যদি আপনাদের মেধা ইচ্ছামতো এই সাইট

থেকে কাজ করেন টাকা উপার্জন করতে পারবেন l

 

 ফাইবার এর তুলনায় ফ্রিল্যান্সাররা সবচেয়ে বেশি পিপল পার আওয়ার ওয়েবসাইটটিতে কাজ

পেয়ে থাকে।  এখানকার পেমেন্ট ও আপনি বাংলাদেশের যেকোনো ব্যাংকে নিয়ে আসতে

পারবেন।

নতুনদের জন্য ফ্রিল্যান্সিং

 

আরো দেখুন

 

কাজখুঁজি:

 

 এই ওয়েবসাইটটিতে আপনি আপনার কাজ অনুযায়ী গিগ তৈরি করে কাজ পেতে পারেন। এই

ওয়েবসাইটে কাজ করলে আপনি উপরের তিনটি ওয়েবসাইটের তুলনায় পেমেন্ট একটু কম

পাবেন। তবে এতে কোন চিন্তার কোন কারণ নেই এতে আপনার সুবিধা অনেক বেশি রাত

হয়েছেl

 

বাংলাদেশের যত ধরনের পেমেন্ট সিস্টেম রয়েছে সবগুলো পেমেন্ট সিস্টেম এই ওয়েবসাইটটি

সাপোর্ট করে। তাই এই ওয়েবসাইটটিতে কাজ করে দেখতে পারেন। আশা করি আপনারা এ

বিষয়ে কিছু ধারণা পেয়েছেনl

 

Guru.Com:

 

এখন আমি আপনাদেরকে এই সম্পর্কে কিছু কথা আপনাদের মাঝে আলোচনা করবl যাতে

আপনি এই সম্পর্ক কিছুটা ধারণা পেয়ে যাবেনl  বাংলাদেশীদের জন্য ফিন্যান্সিং ওয়েবসাইট 

গুরু ডট কম। এই ওয়েবসাইটটিতে ক্লায়েন্টরা বিভিন্ন কাজের জন্য ফ্রিল্যান্সারদের হায়ার করে।

 

একটি বড় সুবিধা হচ্ছে ক্লাইন্ট চাইলে একাধিক কাজের জন্য একজনকে হায়ার করতে পারবে।

এটাতে সুবিধা রয়েছে যদি আপনারা এই কাজগুলো করে ইনকাম করতে চান, তাহলে আপনি

অবশ্যই এই কাজগুলো করে টাকা উপার্জন করতে পারবেন l

 

ফ্রিল্যান্সিং মার্কেটপ্লেস:

 

নতুনদের জন্য ফাইভার মার্কেটপ্লেস খুবই জনপ্রিয়।নতুনরা সহজেই ছোট ছোট কাজ দিয়ে

নিজের ফ্রিল্যান্সিং ক্যারিয়ার শুরু করতে পারেন।  ফাইভারে তাদের দক্ষতার উপর নির্ভর করে

কাজের নির্দিষ্ট প্যাকেজ  করে থাকে।এখানে ছোট কাজ দিয়ে শুরু করে পর্যায়ক্রমে বড়  কাজ

গুলোও করে থাকে।ফাইভারের পরে শিক্ষার্থীরা যে মার্কেটপ্লেসে কাজ করে থাকে সেটি

আপওয়ার্ক।আপওয়ার্ক হল বড় একটি আন্তর্জাতিক মার্কেটপ্লেস।

 

বড় কোম্পানি গুলো তাদের

আউটসোর্সিং গুলো আপওয়ার্ক থেকে করায়। আমাদের  শিক্ষার্থী এই মার্কেটপ্লেসে খুব

সুন্দরভাবে কাজ করে যাচ্ছে। তাই আমি আপনাদের জন্য এই কথাগুলো বলতে চাই আপনারা

এখান থেকে আপনি চাইলে অনেক টাকা ইনকাম করে নিতে পারেনl

 

রিমোট জব:

 

ফ্রিল্যান্সার যখন বিভিন্ন মার্কেটপ্লেসে ভালো মানের কাজ সরবরাহ করে, তখন ক্লায়েন্ট এর সাথে

তার অনেক ভালো সম্পর্ক তৈরি হয়ে যায়।   তখন তাকে মার্কেটপ্লেসের বাইরেও সোশ্যাল

মিডিয়ার মাধ্যমে, ইমেইলের মাধ্যমে কাজ সরবরাহ করে থাকে।  এটি মাসিক চুক্তিতে হয়

চাকুরীর মতো আবার অনেক সময় প্রজেক্ট ভিত্তিক হয়ে থাকে।

 

অনেকেই বাংলাদেশে বসেই

রিমোট জবে একজন ফ্রিল্যান্সার হিসেবে ভাল ভাবে কাজ করে যাচ্ছে। যদি আপনারা ফ্রিল্যান্সার

করতে চান, তাহলে আপনি অবশ্যই এই কাজগুলোর মাধ্যমে আপনি চাইলে, করতে পারবেনl

 

লোকাল জব:

 

তথ্য প্রযুক্তির উন্নয়নের ফলে বাংলাদেশের আইটি খাত এবং এই খাতের কাজ প্রতিনিয়তই বৃদ্ধি

পাচ্ছে। দেশীয় ছোট এবং মাঝারী ব্যাবসায়িক প্রতিষ্ঠান গুলো তাদের ডিজিটাল এবং

টেকনিক্যাল কাজ আউটসোর্সিং করেই জীবন যাপন করছে।  সকল ব্যবসা বাণিজ্য অনলাইনের

অধীনে চলে এসেছে। আমাদের প্রচুর শিক্ষার্থী এখন লোকালী অনেক কাজ করে থাকে।

 

লোকাল জবের সুবিধা হল  কাউকে কোন কমিশন দিতে হয় না। সহজে মোবাইল ব্যাংকিং এর মাধ্যমে

পেমেন্ট নেওয়া যায়।

যদি দক্ষতা অর্জন করে অনলাইন এ নিজের একটি  ক্যারিয়ার গড়ে তুলতে চান ,তবে বসে না

থেকে এখনই ডেভেলোপমেন্টে লেগে পড়ুন। জয় আপনার হবে আমি মনে করি।

 

ফাইবার:

 

ছোট কাজগুলো করার জন্য এটি বিশ্বের সবচাইতে সেরা ওয়েবসাইট। 4 ডলার থেকে শুরু করে

হাজার ডলার এর কাজ এখানে পাওয়া যায়। আপনি কাজ করার জন্য গিগ প্রেজেন্টেশন তৈরী

করবেনl বায়ার আপনার গিগ দেখে আপনাকে কাজ দিবেন। বর্তমান সময়ে Fiverr খুবই

জনপ্রিয় একটি ওয়েবসাইট।

 

আরও অনেক ওয়েবসাইট আছে। যেমন Guru, PeoplePerHour

ইত্যাদি। এ সকল ওয়েবসাইটের মাধ্যমে আপনি কাজ করতে পারেনl

ফ্রিল্যান্সিং এর চিন্তা মাথায় আসলে  চিন্তা করেন কাজ করবো কোথায়? দক্ষতা অর্জনের পর কিভাবে কাজ পাব?

 

Freelancer.Com:

 

দেশের প্রায় ৪০ লক্ষাধিক ফ্রিল্যান্সার ফিল্যান্স ডট কম এ কাজ করে থাকেন।  বেশি সংখ্যক

ফ্রিল্যান্সারের বিপরীতে জবের সংখ্যাও তুলনামূলক কম নয়। আপনার নিজ কাজে দক্ষতা এবং

একটু ধৈর্যশীল হলে , মার্কেটপ্লেসটি থেকে পেতে পারেনl  অন্যান্য ফ্রিল্যান্সিং মার্কেটপ্লেস

গুলোর মতো এখানেও সফটওয়ার, মোবাইল ডেভেলপমেন্ট, ডিজাইন থেকে শুরু করে

কপিরাইটিং সহ বিভিন্ন ক্ষেত্রে কাজ করার সুযোগ।নতুন ফ্রিল্যান্সারদের জন্য ফ্রিল্যান্সিং ডট

কম এ কাজ করা তুলনামূলক সুবিধাজনক।

 

ফ্রিল্যান্সার ডট কম এ একজন ফ্রিল্যান্সার  তিন ধরনের কাজ পেয়ে থাকেন। যথাঃ ঘন্টা ভিত্তিক,

মূল্য ভিত্তিক, প্রতিযোগিতা ভিত্তিক। ঘন্টা ভিত্তিক এবং মূল্য ভিত্তিক কাজগুলো  আপওয়ার্কের

মতো প্রক্রিয়াতেই হয়ে থাকে। তবে প্রতিযোগিতা ভিত্তিক কাজের ক্ষেত্রে কোনো একটি প্রজেক্ট

ক্লায়েন্ট ঘোষণা করে থাকে।  সেই প্রজেক্টের বিপরীতে বিভিন্ন ফ্রিল্যান্সাররা তাদের নিজস্বতা

দিয়ে প্রজেক্ট টি সম্পন্ন করে তারিখের মধ্যে জমা দেয়। বিভিন্ন ফ্রিল্যান্সারদের জমাকৃত

প্রজেক্টের মধ্যে থেকে ঐ ক্লায়েন্ট একজনকে বিজয়ী ঘোষণা করে।

 

এভাবে করে তাদের লক্ষ

বাস্তবায়ন করতে সক্ষম হয়l আশা করি আপনারা এখান থেকে কিছু ধারনা পেয়েছেন কিভাবে

আপনি একজন দক্ষফ্রিল্যান্সার  হিসেবে  নিজেকে বাস্তবায়ন করতে পারে সে ব্যাপারে কিছু কথা

আপনাদের মাঝে তুলে ধরা হলো আশা করি আপনারা এখান থেকে কিছু উপকৃত কথা এবং এর

দ্বারা আপনার অনেক উপকার হবে হয়তো এই জন্য আমি আপনাদেরকে এ ব্যাপারে কিছু কথা

বলেছিl

 

শেষ কথা:

 

উপরুক্ত আলোচনা থেকে আমরা জানতে পারলাম যে,

অনলাইনে  ফ্রিল্যান্সিং অনেক বেশি বেড়ে চলেছে। বিভিন্ন যোগ্যতা সম্পন্ন ফ্রিল্যান্সাররা বিদেশি

বিভিন্ন ওয়েবসাইটে কাজ করে।  বিদেশী অনেক ওয়েবসাইট বাংলাদেশ সাপোর্ট করে না। 

ফ্রিল্যান্সাররা তাদের উপার্জন করা অর্থ  পেতে অনেক কষ্ট হয়।

 বাংলাদেশ থেকে কোন কোন ফ্রিল্যান্সিং ওয়েবসাইটে কাজ করা সহজ lনতুনদের জন্য

ফ্রিল্যান্সিং । তাতে করে আপনাদের কিছু ধারনা আপনাদের দিতে পেরেছিl

7 thoughts on “নতুনদের জন্য ফ্রিল্যান্সিং 2024”

  1. Привет, друзья! Сегодня я хочу поделиться с вами историей о том, как портал zaim-fin.ru стал спасением в моей жизни. Недавно у меня и моей второй половинки возникла мечта устроить незабываемое свадебное торжество. Однако финансовые возможности позволяли нам лишь мечтать об этом. Но вот мы наткнулись на портал zaim-fin.ru, который открыл перед нами новые горизонты! Здесь мы нашли не только МФО, готовые выдать займы даже с плохой кредитной историей, но и вдохновение от множества свадебных историй успеха. Благодаря этому ресурсу, мы смогли осуществить нашу мечту и устроить самое сказочное свадебное торжество! Так что, если у вас есть мечта, не стесняйтесь обращаться к порталу zaim-fin.ru – здесь ваша мечта может стать реальностью!

  2. Привет, друзья! Наверное, каждый из нас сталкивался с ситуацией, когда деньги заканчиваются, а важные расходы необходимо сделать прямо сейчас. В такие моменты займы кажутся настоящим спасением, но важно помнить о том, что неправильное использование займов может привести к долговой яме. Перед тем как брать заем, обязательно оцените свои финансовые возможности для его погашения. Не берите займы на покрытие текущих расходов, а также не берите займы на сумму, которую не сможете вернуть. Также избегайте множественных займов, чтобы не попасть в долговую ловушку. Помните, что займы – это ответственность перед кредитором, и берите их только тогда, когда это действительно необходимо и когда вы уверены, что сможете вернуть деньги вовремя.

  3. Good Day

    This is Mike Donovan

    Let me present you our latest research results from our constant SEO feedbacks that we have from our plans:

    https://www.strictlydigital.net/product/semrush-backlinks/

    The new Semrush Backlinks, which will make your amarblogbd.com SEO trend have an immediate push.
    The method is actually very simple, we are building links from domains that have a high number of keywords ranking for them. 

    Forget about the SEO metrics or any other factors that so many tools try to teach you that is good. The most valuable link is the one that comes from a website that has a healthy trend and lots of ranking keywords.
    We thought about that, so we have built this plan for you

    Check in detail here:
    https://www.strictlydigital.net/product/semrush-backlinks/

    Cheap and effective

    Try it anytime soon

    Regards
    Mike Donovan

    mike@strictlydigital.net

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *