Latest post Uncategorized

সেরা ৫ টি বাংলা বই

Written by pro_noob

আপনি কি বইপোকা? বই পড়ে নিজের অবসর সময় টুকু কাটাতে চান? জ্ঞান বৃদ্ধি আর অবসর সময় কাটানোর ক্ষেত্রে বই এর কোন তুলনা হয় না। এছাড়া বই মেলায় গেলে কখনো কখনো চিন্তায় পরে যান কোন বই গুলো কিনবেন? কিনে ফেলুন বিশ্বজয় করা এই ৫ টি বাংলা বই।

১)পথের পাঁচালী – পথের পাঁচালী বই টি (১৯২৯) সালে রচিত হয় । এটি প্রখ্যাত সাহিত্যিক বিভূতিভূষণ বন্দ্যোপাধ্যায় রচিত একটি বিখ্যাত উপন্যাস । উপন্যাসটি মোট ৩ টি খন্ডে বিভক্ত, যথাক্রমে বল্লালী বালাই , আম-আঁটির ভেঁপু, অক্রূর সংবাদ এই তিন ভাগে ভাগ করা হয়েছে। এটি একটি পারিবারিক কাহিনির উপর লেখা হয়েছে। উপন্যাস এর প্রথম ভাগে চরিত্র পরিচিতি নিখুঁত ভাবে তুলে ধরা, দ্বিতীয় ভাগে অপু আর দুর্গা (প্রধান চরিত্র) ছোট বেলা থেকে একসাথে বেড়ে উঠা, পরবর্তীতে দুর্ভাগ্যবশত দুর্গার মৃত্যু, অপুর কস্টে গ্রাম ত্যাগ করার কাহিনি তুলে ধরা হয়েছে, তৃতীয় ভাগে অপুর পরের জীবন এর চিত্র তুলে ধরা হয়েছে। সব মিলিয়ে লেখক পুরো উপন্যাস এ নিজের মনের মাধুরী মিশিয়ে সব গ্রাম বাংলার সহজ প্রকৃতি, ভালোবাসা , বিয়োগান্তর কষ্ট সব তুলে ধরেছেন । পরবর্তীতে সত্যজিৎ রায় এই উপন্যাস অনুসারে ছবি নির্মাণ করেন যা পুরো বিশ্বে অনেক বিখ্যাত হয়।

২) চোখের বালি –  চোখের বালি রবিন্দ্রনাথ ঠাকুর এর বিখ্যাত উপন্যাস যেটি ১৯০৩ সালে রচিত হয়েছিল। পরবর্তীতে এই উপন্যাস নিয়ে অনেক নাটক আর ছবি নির্মিত হয়েছে। উপন্যাস এর কাহিনির প্রধান চরিত্র হচ্ছে মহেন্দ্র, আশা, বিনোদিনি, বিহারি । বিনোদিনী বাল্যববাহিত বিধবা যাকে নিয়ে দুই পুরুষ এর আকর্ষণ তথা সমাজের বিরোধ এই সবই উপন্যাস এ ফুটে উঠে। মহেন্দ্র প্রথমে আশালতাকে বিয়ে করে বিধবা বিনোদিনীর রুপ এর প্রেমে পড়ে যায়। পরবর্তীতে সমাজ এর সব বাধা নিষেধ অমান্য করে বিনোদিনী কে নিয়ে পালিয়ে যায়। উপন্যাসটি পুরো বিশ্বে বিখ্যাত হয়।  ২০০৩ সালে উপন্যাস এর উপর নির্মিত হয় ছবি চোখের বালি যার প্রধান চরিত্রে অভিনয় করে ঐশ্বরিয়া রায় বচ্চন, রাইমা সেন, প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায়।

৩) শেষের কবিতা – শেষের কবিতা ১৯২৭ সালে রবিন্দ্রনাথ এর রচিত একটি বিশ্ববিখ্যাত উপন্যাস। যারা রোমান্টিক উপন্যাস পছন্দ করেন তাদের জন্য এই উপন্যাসটি। এই উপন্যাস এর প্রধান চরিত্র অমিত রায় যে বিলেত থেকে ব্যারিস্টার পাশ করে এসেছে, একবার ঘুরতে গিয়ে লাবণ্য নামের এক মেয়ের সাথে দেখা হয় আর অমিত লাবণ্যর প্রেমে পড়ে যায়। যখন অমিত লাবণ্যর বিয়ের কথা চলে তার মধ্যে চলে আসে কেতকি যে কিনা দাবি করে সে অমিত এর পুরানো প্রেমিকা এভাবে ভেঙ্গে যায় অমিত লাবণ্যর বিয়ে। পুরো উপন্যাস কে কবি কাব্যিক সৌন্দর্য দিয়ে ফুটিয়ে তুলেছেন উপন্যাস এ। পরবর্তীতে ২০১৩ সালে উপন্যাস অনুসারে ছবি নির্মাণ করা হয় যা ব্যাপক সাফল্য লাভ করে।

৪) চাঁদের পাহাড় – চাঁদের পাহাড়  প্রখ্যাত সাহিত্যিক বিভূতিভূষণ বন্দ্যোপাধ্যায় এর রচিত যেটি ১৯২৭ সালে রচিত হয়। পরবর্তীতে ২০০২ সালে এটি ইংরেজিতে রচিত হয়। এটি একটি রোমাঞ্চকর উপন্যাস । এই উপন্যাস এর প্রধান চরিত্র শঙ্কর রায়  যে রোমাঞ্চ এর খোঁজে আফ্রিকা যায় আর আফ্রিকার ভ্রমন কে উল্লেখ করেই এই উপন্যাসটি লেখা হয়েছে। আফ্রিকাতে তার যুদ্ধ হয় সিংহের সাথে, এছাড়া মুখোমুখি হয় ব্ল্যাকমাম্বার সাথে। আফ্রিকায় সে এবং তার সঙ্গি ছিলও জিম কার্টার তার মিলে পৃথিবীর সবচেয়ে দামি হিরক এর সন্ধান পায়। সব মিলিয়ে যারা ভ্রমনপ্রিয় মানুষ আর রোমাঞ্চ ভালবাসেন তাদের জন্যই এই উপন্যাস।

৫) জ্যোৎস্না ও জননীর গল্প–  জ্যোৎস্না ও জননীর গল্প প্রখ্যাত লেখক হুমায়ন আহমেদ এর রচিত। এটি ২০০৪ সালে রচিত হয়। এটি ১৯৭১সালের মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক উপন্যাস । ১৯৭১ সালে  ফেব্রুয়ারির মাঝামাঝি সময়ে নীলগঞ্জের আরবি শিক্ষক ইরতাজউদ্দিন ঢাকা আসে তার ভাই ভাই এর মেয়ে ভাই এর বউ  কে দেখতে। এই মাউলানা আর তার আশেপাশে ঘিরে থাকা মানুষ গুলো নিয়েই “জ্যোৎস্না ও জননীর গল্প” ।  ২০০৮ সালে বিটিভিতে এই উপন্যাসটির উপর ধারাবাহিক সম্প্রচার করা হয়। যার পরিচালক ছিলেন হুমায়ন আহমেদ নিজেই। কিন্তু তিনটি পর্ব প্রচারিত হবার পরে ঢাকার বিমানবন্দর এলাকায় স্থাপিত লালন ভাস্কর্য ভাঙার প্রতিবাদে তিনি এই ধারাবাহিক এর কাজ বন্ধ করে দেন। পরে ২০১০ সালে আবার এই ধারাবাহিক এর নির্মাণ শুরু হয়।

Subscribe
Notify of
guest
0 Comments
Inline Feedbacks
View all comments