Fashion Latest post

লিপস্টিকের ইতিহাস

Written by pro_noob

বর্তমান সময়ে আমরা লিপস্টিক এর সাথে কে না পরিচিত। কমবেশি সব মেয়েরাই লিপস্টিক ব্যাবহার করে থাকে, কিন্তু এখন এর লিপস্টিক বহু বছর আগে কি এমন ছিলো? আসুন জেনে নিই কিভাবে উৎপত্তি হলো লিপস্টিক এর।

প্রাচীন সময়ে মানুষ বিভিন্ন রকম ছবি বানাতো। তারা তাদের শরির এ বিভিন্ন রঙ দিয়ে রঙ করতো।এই ধারনা থেকেই ঠোট এ রঙ দেয়ার ধারনার উৎপত্তি আসে। সম্ভাবনা আছে যে লিপস্টিক এর আবিস্কার করে প্রথম ৫০০০ বছর আগের প্রাচীন সুমেরীয়ান অধিবাসী। তারা পাথর কে ভেংগে এর থেকে চিকিচিক করা এক ধরনের পদার্থ নিজেদের চেহারায় বিশেষ করে চোখে আর ঠোটে লাগাতো।

ছবি- প্রাচিীনকাল ।

কথিত আছে যে রানি ক্লিউপেট্রা বিভিন্ন রঙিন ক্ষুদ্র পতঙ্গ পিষে এর থেকে লাল রঙ বের করে ঠোটে লাগাতো।

ছবি- রানী ক্লিউপেট্রা

সন ২০০-২৫০ বিসি তে প্রাচিন ইজেপ্টিয়ানরা লিপস্টিক কে বেশ্যাদের চিহ্ন বলে মনে করতো। সাল ৭০০ বিসির দিকে ধনি মহিলারা নিজেদের ঠোটে লাল রঙ করে নিজেদের ধনি প্রমান করতো।ঐ সময় লাল রঙ বা কালচে লাল রঙের ব্যাবহার হতো অন্য সেড এর প্রচলন ছিল না।

ছবি- কালচে লাল রঙ্গের লিপস্টিক সেড।

প্রায় এক হাজার বছর আগে চাইনিজরা নিজের সুন্দর চেহারা ভালো রাখার জন্য ফুলের রঙ দিয়ে নিজের ঠোটের মাঝে রঙ করে থাকতো। প্রাচীন চায়নায় এটি তখন খুব প্রচলিত ছিল।

ছবি- প্রাচীন চায়না।

প্রাচীন অস্ট্রেলিয়ান যুবতি মেয়েরা বিশ্বাস করতো ঠোটে রঙ করলে খারাপ ও মন্দ শক্তির হাত থেকে রক্ষা পাওয়া যায়।

লিপিস্টিক এর ধারনা পুরোপুরি স্পষ্ট হয় রানি এলিজাবেথ এর সময়ে।রানি এলিজাবেথ লিপস্টিক কে সৌন্দর্যের প্রতিক হিসেবে ব্যাবহার করার প্রচলন করে। তারপর আস্তে আস্তে এ ধারনা প্রচলিত হতে থাকে। উনিশ শতাব্দির (১৮০০ সালের শুরুতে) দিকে লিপস্টিক কে শুধুমাত্র আধুনিকতার চিহ্ন হিসেবে অনেক উচ্চ বংশের মেয়েরা, অভিনেত্রীরা ব্যাবহার করতো।কালচে লাল রঙ ওই সময়ে খুব জনপ্রিয় সেড হিসেবে ব্যাবহার হতো। ওই সময় এর যুবতী মেয়েদের লিপস্টিক লাগানো যৌন আকাংখার চিহ্ন বলে মনে করা হতো, কিন্তু যুবতীরা এটিকে নারিত্বের চিহ্ন মনে করে ব্যবহার করতো। ওইসময় প্রায় ৫০ ভাগ যুবতীরা পরিবার এর সাথে ঝগড়া করতো লিপস্টিক লাগানো নিয়ে।

বিংশ শতাব্দীর শুরুতে লিপস্টিক কিছু সংখ্যক শেড নিয়ে বিক্রি শুরু করা হলো। তারপর ১৯৩০ এর দিকে বিভিন্ন হলিউড অভিনেত্রী যেমন এলিজাবেথ টেইলর, মারলিন মনোরে লিপস্টিক এর প্রচলন শুরু করে।

ছবি- এলিজাবেথ টেইলর।

এইভাবে আস্তে আস্তে লিপস্টিক প্রচলিত হতে থাকে। প্রথম লিপস্টিক বানিজ্যক ভাবে হেজ্যাল বিশপ (hazel Bishop) নামের প্রতিষ্ঠান এর আমদানি শুরু করে তারা লিপস্টিক এর ভালো মান আর আকর্ষণীয় শেড এর ওপর জোর দিয়ে বাজার শুরু করে। বর্তমানে লিপস্টিক খুব জনপ্রিয় একটি কসমেটিকস হিসাবে ব্যাবহৃত হয়ে থাকে যা মেয়েদের সৌন্দর্য বৃদ্ধির সহায়ক।

Subscribe
Notify of
guest
0 Comments
Inline Feedbacks
View all comments