Latest post

বিশ্বের সেরা ১০ টি মাথা নষ্ট করার মতো থ্রিলার মুভি

Written by pro_noob

বিশ্বের সেরা ১০ টি মাথা নষ্ট করার মতো থ্রিলার মুভি, আপনি যদি থ্রিলার মুভি প্রেমি হয়ে থাকেন তাহলে দেখে নিন এই মুভি গুলো আর যদি আগে দেখা হয়ে থাকে তাহলে আমাদের কমেন্ট এ রিভিউ জানাতে পারেন।

১) Memento

মেমেন্টো  (যুক্তরাজ্য-২০০০)- ২০০০ সালে মুক্তিপ্রাপ্ত এই ছবিটি অনেক বেশি সফলতা লাভ করে এবং বিভিন্ন ভাষায় পুনরায় ও ছবিটি তৈরি করা হয়। ছবিটির কাহিনি  লিউনার্ড কে নিয়ে যার স্ত্রি কে রেপ করে কেউ একজন হত্যা করে ফেলে এবং সে ওই হত্যাকারী কে খুজে বের করতে অপ্রান চেষ্টা করতে থাকে কিন্তু লিউনার্ড এর একটি দুরঘটনায় স্মৃতি শক্তি সব চলে যায় সে ২০ মিনিট এর বেশি কিছু মনে রাখতে পারে না! এখন কিভাবে সে খুনি কে নের করবে?

২)The girl with dragon tatoo

দ্যা গার্ল উইথ ড্রাগন ট্যাটু (সুইডেন- ২০০৯) – ২০০৯ সালে রিলিজপ্রাপ্ত সুইডিস মুভিটি রিলিজ এর সাথেই অনেক সারা ফেলে দেয় । মুভির প্রধান চরিত্রে দেখা যায় একজন সাংবাদিক কে যে প্রায় ৪৬ বছর আগে হারিয়ে যাওয়া একজন মহিলার সন্ধানে বের হয় এবং তাকে সাহায্য করে  লিছবেথ নামের এক্কটি মেয়ে যে একজন কম্পিউটার হ্যাকার ।মুভিটি আপনি শুরু করলে শেষ হওয়া পর্যন্ত উঠতে পারবেন না।

৩) Train to bushan

ট্রেন টু বুসান( সাউথ কোরিয়া ২০১৬ ) – সাউথ করিয়ান থ্রিলার এমনিতে পুরো বিশ্বে বিখ্যাত, আপনি জিবনে হয়তো অনেক জম্বি বা থ্রিলার মুভি দেখেছেন কিন্তু এইটা আপনাকে সবার থেকে আলাদা মনে হবে , মুভিটিতে যেমন আপনি টুইস্ট পাবেন তেমন থ্রিলার পাশাপাশি ইমোশনাল ও করে দিবে আপনাকে । মুভিটির কাহিনি একটি ট্রেন কে কেন্দ্র করে যেখানে অনেক যাত্রি নিজের গন্তব্যস্থলে পৌঁছানর জন্য উঠে কিন্তু কিছু দূর যাওয়ার পর ট্রেন এ ভয়াবহয় এক কান্ড হয় যেটি দেখতে হলে দেখতে হবে সাউথ কোরিয়ান এই ছবি টি ।

৪) Orphan

অরফেন – (যুক্ত্ররাজ্য- ২০০৯)- এই মুভিটি যারা হরর প্রেমি তারও দেখতে পারেন। ছবিটির কাহিনি একটি সদ্য সন্তান হারা দম্পতী কে নিয়ে যারা একটি অনাথালয় এ গিইয়ে একটা মেয়ে কে পালার জন্য নিয়ে আসে। কিন্তু মেয়েটি স্বাভাবিক ছিলো না , এবং এর শেষ এর টুইস্ট আপনাকে অবাক করবে ।

৫) The sixth sense

দ্যা সিক্সথ সেন্স ( যুক্তরাজ্য ১৯৯৯)- ১৯৯৯ সালে মুক্তি পাওয়া সাইকো থ্রিলার এই ছবিটি অসংখ্য পুরুস্কার এর জন্য মনোনয়ন প্রাপ্ত হয়। এই ছবির কাহিনি কোল নামের একজন বালক এর যে মানুষিক সমস্যার কারনে বন্ধুমহল থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে পরে কিন্তু পরে সে আবিষ্কার করে যে সে মৃত মানুষ দেখতে পায় । এই ছেলেটিকে ঘিরেই এর কাহিনী আবর্তিত হয়েছে যাতে ব্রুস উইলিস একজন মনোরোগ বিশেষজ্ঞের ভূমিকায় অভিনয় করে।

৬) The chaser

দ্যা চেজার ( কোরিয়ান ২০০৮ )- সিরিয়াল কিলিং নিয়ে মুভি কার না ভালো লাগে? মুভির কাহিনি একজন সাবেক পুলিশ কর্মকর্তার যে একজন নারী পতিতা কে একজন ভয়ানক পাগল খুনির হাত থেকে বাঁচানোর জন্য নিজের সর্বস্ব চেস্টা করে। অস্থির থ্রিলার এ ভরপুর এই ছবি টি দেখে নিতে পারেন আশা করা যায় আপনার সময় নষ্ট হবে না।

৭) Ratsasan

রাতসাসান (তামিল -২০১৮ ) – সিরিয়াল কিলিং নিয়ে আর একটি অস্থির থ্রিলার মুভি । এই ছবিটির কাহিনি একজন পুলিশ অফিসার এর যার শপ্ন ছিলো সিরিয়াল কিলিং নিয়ে ছবি বানবে কিন্তু অসফল হয়ে যখন সে পুলিশ এর চাকরী তে যোগ দেয় সাথে সাথে তার আশে পাশে ঘটতে থাকে সিরিয়াল কিলিং যা পুলিশ এর মাথা খারাপ করে দেয়। কে এই খুনি এখন এটা বের করাই সবচেয়ে বড় চ্যালেঞ্জিং ব্যাপার ।

৮) Andhadhun

আন্ধাধুন ( ভারত- ২০১৮) সম্প্রতি মুক্তি পাওয়া এই ছবিটি মুক্তির পর আলোড়ন তৈরি করে দেয় এবং বক্স অফিসেও প্রচন্ড সফলতা লাভ করে। এই ছবির কাহিনি বলে দেয়া মানেই অনেক টা স্পয়লার দেয় তাই আপনাকে নিজেই ছবিটি দেখতে হবে কারন এই ছবির শুরু থেকে ধরে শেষ পর্যন্ত শুধু টুইস্ট আর টুইস্ট। আপনি একবার ছবিটি দেখা শুরু করলে শেষ না করে উঠতে পারবেন না ।

৯) 22 se Srabon

২২ শে শ্রাবন ( কলকাতা ২০১১)- কলকাতায় ২০১১ সালে মুক্তি পাওয়া এই ছবিটি ও কিন্তু আপনার ওয়াচ লিস্টে রাখতে পারেন। এই ছবির কাহিনি একজন সাবেক পুলিশ অফিসার এর যার উপর দায়িত্ব পড়েছে একজন সিরিয়াল কিলার কে বের করা যে একের পর এক শহরে খুন করে বেরাচ্ছে । টান টান উত্তেজনায় পূর্ণ এই ছবি ছবিটি অবশ্যই দেখবেন ।

১০) Kashnam

কাশহনাম (তেলেগু- ২০১১)- এই ছবিটির থ্রিলার আপনাকে ভালই আকর্ষিত করবে । কাহিনি একজন পুলিশ অফিসার এর যে একদিন নিজের সাবেক প্রেমিকার ফোন পায় এবং তাকে সাহায্য করার জন্য ছুতে যায় তার সাবেক প্রেমিকা তাকে জানায় তার একমাত্র মেয়েটির অপহরনের কথা কিন্তু বিভিন্ন ভাবে খোজ নিয়ে জানা যায় মেয়েটির কোন অস্তিত্বই ছিলো না। এই ছবির পরবর্তী হিন্দি তে বাঘি ২ নামে রিমেক করা হয় ।

 

 

 

 

 

Subscribe
Notify of
guest
0 Comments
Inline Feedbacks
View all comments